ইউক্রেন যুদ্ধ যেভাবে ইউরোর প্রাইস বৃদ্ধিতে প্রভাব ফেলছে

আজ বুধবার এশিয়ান সেশনে রাশিয়া ও ইউক্রেনের মধ্যে শান্তি আলোচনার অগ্রগতির আশা ইউরোকে উৎসাহ দিচ্ছে। অপরদিকে ডলারের প্রাইস কমছে।

জাপানি ইয়েন যা ইতিমধ্যে চাপের মধ্যে রয়েছে, এমনকি ব্যাংক অব জাপানের (BOJ) বন্ডের ফলন কমানোর প্রচেষ্টা চালিয়ে যাওয়ার পর মার্কিন ডলারের বিপরীতে জাপানি ইয়েন কিছুটা শক্তিশালী হওয়ার চেষ্টা করছে। দ্বিতীয় দিন মার্কিন ডলারের প্রাইস কমে ৯৮.১৯ এর কাছাকাছি মুভমেন্ট করছে।

ইউক্রেন যুদ্ধ থেকে ইকোনমিক পতনের আশঙ্কায় সাম্প্রতি সপ্তাহগুলোতে ইউরোর প্রাইস কমলেও রাশিয়া ইউক্রেন আলোচনার সম্ভাবনাকে কেন্দ্র করে গতকাল থেকে EURUSD পেয়ারের প্রাইস বেড়ে ১.১১০০ এর উপরে অবস্থান করছে।  যদিও গতকাল পেয়ারটি দুসপ্তাহের সর্বোচ্চ প্রাইস ১.১১৩৬-তে উঠেছিল।

Untitled-1.jpg

এর ফলে রাশিয়ার রুবেলের প্রাইস বেড়ে এক মাসের সর্বোচ্চ ৮৩.৫০ এর কাছাকাছি মুভমেন্ট করছে। ইস্তাম্বুলে রাশিয়া-ইউক্রেন মুখোমুখি আলোচনায়, রাশিয়া ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভের চারপাশে সামরিক অভিযান কমানোর প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।

তবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সতর্ক করেছে কিয়েভের জন্য এখনও হুমকি রয়েছে, যা ২৪ ফেব্রুয়ারি থেকে রাশিয়ান আক্রমণ শুরু হওয়ার যুদ্ধের সমাপ্তির আশাবাদের উপর জল ঢেলে দিয়েছে। অস্টেলিয়ার কমনওয়েলথ ব্যাংকের কৌশলবিদ জো ক্যাপুরসো রয়টার্সকে বলেন: ‘‘যুদ্ধ সম্বন্ধে আপাতত সুসংবাদটি অন্য যে কোনো মুদ্রার তুলনায় ইউরোকে বেশি উপকৃত করবে।’’

MUFG ব্যাংকের বিশ্লেষক সোফিয়া এনজি রয়টার্সকে বলেছেন, ‘‘বর্তমানে মার্কিন ডলারের বিপরীতে ইয়েনের প্রাইস বৃদ্ধিতে ঝুঁকি রয়েছে।

হোম
নিউজ
ট্রেডিং স্কুল
ব্রোকার
সিগন্যাল
ক্লাব
Scroll to Top