GBPUSD সাপ্তাহিক ফরেকাস্ট (১৯ – ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২২)

মার্কিন কেন্দ্রীয় ব্যাংক ফেডারেল রিজার্ভ ইন্টারেস্ট বৃদ্ধি করবে এমন সম্ভাবনা GBPUSD-এর প্রাইস কমার ক্ষেত্রে সহায়তা করছে। এ সপ্তাহে মার্কিন কেন্দ্রীয় ব্যাংকের এ ধরনের অবস্থান অন্যান্য কারেন্সিগুলোর বিপরীতে ডলারকে শক্তিশালী করবে।

গত সপ্তাহে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্য থেকে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ নিউজ ছিলো। যা ফরেক্স মার্কেটে প্রভাব ফেলেছিলো। বিনিয়োগকারীদের নজর উভয় দেশের মুদ্রাস্ফীতি রিপোর্টের দিকে।

এ সপ্তাহে যা হতে পারে

প্রত্যাশা করা হচ্ছে, এ সপ্তাহটি খুবই অস্থির হবে। গত সপ্তাহে কনজিউমার কনফিডেন্স প্রত্যাশার থেকে বৃদ্ধি পেয়েছে। এর ফলে ব্যাংক অফ ইংল্যান্ডের ইন্টারেস্ট রেট বৃদ্ধির সম্ভাবনা কয়েকগুনে বৃদ্ধি পেতে পারে।

এ সপ্তাহে GBPUSD পেয়ারকে প্রভাবিত করার মতো ইভেন্টগুলোর মধ্যে রয়েছে ফেডারেল রিজার্ভ ও ব্যাংক অফ ইংল্যান্ডের ইন্টারেস্ট রেট ডিসিশন। ২১ সেপ্টেম্বর অর্থাৎ বুধবার ফেড ইন্টারেস্ট রেট ২.৫% থেকে বাড়িয়ে ৩.২৫% করবে। যা ডলারকে শক্তিশালী করার সম্ভাবনা রয়েছে।

এর ফলে GBPUSD এর প্রাইস কমার সম্ভাবনা রয়েছে। তবে ঠিক পরের দিন ২২ সেপ্টেম্বর অর্থাৎ বৃহস্পতিবার ব্যাংক অফ ইংল্যান্ড ইন্টারেস্ট রেট ১.৭৫% থেকে বৃদ্ধি করে ২.২৫% বৃদ্ধি করবে। ব্যাংক অফ ইংল্যান্ডের রেট বৃদ্ধির সম্ভাবনা ডলারের বিপরীতে পাউন্ডকে পুনরায় শক্তিশালী করতে পারে।

GBPUSD টেকনিক্যাল অ্যানালাইসিস

ডেইলি চার্টে দেখা যাচ্ছে, GBPUSD ২২ SMA-এর নিচে অবস্থান করছে। যা প্রাইস কমার সম্ভাবনাকে বৃদ্ধি করছে। এছাড়াও RSI ইনডিকেটর অনুযায়ী, GBPUSD ৫০ পয়েন্টের নিচে অবস্থান করছে। GBPUSD নিচের তৈরি করা ট্রেন্ড লাইন অতিক্রমে সক্ষম হলে সেক্ষেত্রে ডাউনট্রেন্ড শক্তিশালী হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

অপরদিকে ২২ SMA- ১.১৭২২ রেজিস্ট্যান্স অতিক্রমে আপট্রেন্ড শক্তিশালী হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

Leave a Comment

Your email address will not be published.

হোম
নিউজ
ট্রেডিং স্কুল
ব্রোকার
সিগন্যাল
ক্লাব
Scroll to Top