ফেডের রেট বৃদ্ধিতে কেমন প্রভাব পড়বে ক্রিপ্টো ও ফরেক্স মার্কেটে

ক্রিপ্টো মার্কেটে এ সপ্তাহের প্রধান ইভেন্টগুলোর মধ্যে অন্যতম ইথেরিয়াম মার্জ। ইথেরিয়াম ব্লকচেইন প্রুফ অফ ওয়ার্ক থেকে প্রুফ অফ স্টেকে রূপান্তর হয়েছে। ইথেরিয়াম মার্জকে কেন্দ্র করে কয়েনের প্রাইসে বুলিশ দেখা যায়নি। যা এ সপ্তাহের অন্যতম আলোচিত বিষয়। গত ২৪ ঘন্টায় ক্রিপ্টো মার্কেট ৩%-এরও বেশি নিচে নেমে এসেছে।

পরিসংখ্যান অনুযায়ী সমস্ত ক্রিপ্টো টোকেনের মার্কেট প্রাইস ৯৬২.৪২ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। আগের দিন অর্থাৎ ইথেরিয়াম মার্জ ইভেন্টের পূর্বে ক্রিপ্টো ইকোনমির প্রাইস ছিল ১.১৬ ট্রিলিয়ন ডলার। গত ২৪ ঘন্টায় বিটকয়েনর প্রাইস ২.৬% ও ইথেরিয়াম ৭%-এরও বেশি কমেছে।

বিটকয়েন ও ইথেরিয়ামের প্রাইসে লক্ষ করে দেখা যাচ্ছে, বিটকয়েন প্রতি ইউনিট ১৯,৭৯৪ ও ইথেরিয়াম ১,৪৯৫ ডলারে নেমে এসেছে। মার্কিন ব্যুরো অফ লেবার স্ট্যাটিস্টিক্স আগস্টের কনজিউমার প্রাইস ইনডেক্স (CPI) রিপোর্ট প্রকাশ করার পর আসন্ন ফেডারেল রিজার্ভের ইন্টারেস্ট রেট বৃদ্ধির বিষয়ে বিনিয়োগকারীরা উদ্বিগ্ন।

ফেডারেল ওপেন মার্কেট কমিটি (FOMC) ২০-২১ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত হবে এমন আশা করা হচ্ছে। CME গ্রুপের ডেটা ইঙ্গিত করে ৮০% বিনিয়োগকারী আশা করছে ফেড আগামী সপ্তাহে ৭৫ বেসিস পয়েন্ট হার বাড়িয়ে দেবে। বৃহস্পতিবার দুই বছরের ট্রেজারি ফলন ৩.৮৫% বৃদ্ধি পেয়েছে।

সর্বোপরি ফেডারেল রিজার্ভের ৭৫ বিপিএস রেট বৃদ্ধি ক্রিপ্টো মার্কেটে ভালো প্রতিক্রিয়া দেখাবে না কারণ গত কয়েক মাস FOMC যতবার ইন্টারেস্ট বাড়িয়েছে ততোবার ক্রিপ্টো মার্কেট ক্র্যাশ করেছে।

অপরদিকে রেট বৃদ্ধির ফলে ডলারের প্রাইস বেড়ে যেতে পারে। যা ডলারের বিপরীতে ফরেক্স মার্কেটে অন্যান্য কারেন্সিগুলোর প্রাইস কমতে পারে।

Leave a Comment

Your email address will not be published.

হোম
নিউজ
ট্রেডিং স্কুল
ব্রোকার
সিগন্যাল
ক্লাব
Scroll to Top