প্রত্যাশার উপরে জার্মান জিডিপি ইউরো ডলারকে সমতায় এনেছে

EURUSD বেশ কয়েকদিন ডলারের সমতার নিচে থাকলেও আজকের সেশনে বৃদ্ধি পেয়ে সমতায় ফিরে এসেছে। বর্তমানে EURUSD পেয়ার ১ ডলারের কাছাকাছি মুভমেন্ট করছে।

আজ বৃহস্পতিবার EURUSD পেয়ার ০.২২% বৃদ্ধি পেয়ে ১.০০১৮ এর কাছাকাছি মুভমেন্ট করছে। জ্যাকসন হোল সিম্পোজিয়ামের সময় প্রধান কারেন্সি পেয়ারের মুভমেন্ট প্রভাবিত হতে পারে। আজকের সেশনে দ্বিতীয় প্রান্তিকের জার্মান জিডিপি ডাটা EURUSD পেয়ারকে প্রভাবিত করছে।

প্রথম প্রান্তিকে জার্মান জিডিপি অপরিবর্তনীয় থাকলেও দ্বিতীয় প্রান্তিকে ০.১% বৃদ্ধি পেয়েছে। বাৎসরিক ব্যবধানে ১.৪% থেকে বেড়ে ১.৭% এসেছে। ঊর্ধ্বমূখী জার্মান জিডিপি ডাটা আজকের সেশনে ইউরোর প্রাইস বৃদ্ধিতে সহায়তা করছে।

এর ফলে EURUSD ০.৯৯৬৫ থেকে রিকভার করে ১.০০১৮ প্রাইসে আসতে সক্ষম হয়েছে। ইউরোকে প্রভাবিত করার মতো আজকের ইভেন্টগুলোর মধ্যে রয়েছে বিজনেস ক্লাইমেন্ট রিপোর্ট। প্রত্যাশা করা হচ্ছে,  আগস্টে বিজনেস ক্লাইমেন্ট অপরিবর্তনীয় থাকতে পারে।

মার্কিন ইভেন্টগুলোর মধ্যে দ্বিতীয় প্রান্তিকে জিডিপি রিপোর্ট বেশ গুরুত্বের সাথে দেখানো হচ্ছে। প্রত্যাশা করা হচ্ছে, দ্বিতীয় প্রান্তিকে মার্কিন জিডিপি -০.৯% থেকে কমে -০.৮% আসতে পারে।

ইউরো ডলারের বিপরীতে ঊর্ধ্বমূখী অবস্থান ধরে রাখতে পারবে কিনা তা নিয়ে সন্দেহ রয়েছে। রাশিয়া কয়েকদিনের মধ্যে ইউরোপে গ্যাস সরবরাহ বন্ধ করে দিতে চাচ্ছে। যা ইউরোজোন অঞ্চলের উপর নেতিবাচক প্রভাব তৈরি করতে পারে। এর ফলে ইউরোর প্রাইস আরও কমার সম্ভাবনা রয়েছে। যা ডলারের বিপরীতে ইউরো দুর্বল হতে পারে।

Leave a Comment

Your email address will not be published.

হোম
নিউজ
ট্রেডিং স্কুল
ব্রোকার
সিগন্যাল
ক্লাব
Scroll to Top